Tuesday, January 18, 2022

মুক্ত লেখনী

প্রধান ম্যেনু

সাহিত্য পত্রিকা

June, 2018

বর্তমানে মাস হিসাবে দেখছেন

 

শ্রেষ্ঠ মানব

শ্রেষ্ঠ মানব এম.শরীফ হোসেন শ্রমিক তোমার ঘামে ভেজা ইটের এ শহর, তোমার দেয়া রক্ত শ্রমে আমি স্বার্থপর। তুমি মহান শ্রেষ্ঠ তুমি তুমি শ্রমজীবি, আমি অলস বেঁচে থাকি হয়ে পরজীবি। রৌদ্র প্রখর রাত্রি প্রহর ঝড় বৃষ্টি ঢেউ তোমায় শত উপহাস করে নোয়াতে পারেনি কেউ। পেটের ক্ষুধা? আমরা ভাবি আসলে তা নয়, পাষান বসের বেদম চাপে কাজেই জীবন ক্ষয়। তবুও তোমার মুখে হাসি মন করোনা ভার, দু’মুঠো ভাত, নুনে ডালে দিনকে কর পার।বিস্তারিত পড়ুন

 13,983 total views,  7 views today

লেখক পরিচিতি

এম. শরীফ হোসেন

এম. শরীফ হোসেন ১৯৮৪ সনের ২৮ সেপ্টেম্বর নরসিংদী জেলার মাধবদী থানাধীন কান্দাইল (রশিদেরবাড়ী) গ্রামে জন্মগ্রহন করেন। তার পিতা মো: চাঁন মিয়া ভুইয়া ও মাতা রেজিয়া বেগম। সাত ভাই একবোনের মধ্যে তিনি ৭ম। পুরিন্দা কে এম সাদেকুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয় হতে এস এস সি পাশ করে পাঁচরুখি বেগম আনোয়ারা কলেজে এইচ এস সি পর্যন্ত পড়াশোনা করেন। পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি স্থানীয় পত্রিকা সাপ্তাহিক “খোরাক” ও জাতীয় কয়েকটি পত্রিকায় সাংবাদিকতা করেন দীর্ঘদিন। এ পর্যন্তবিস্তারিত পড়ুন

 2,538 total views,  2 views today

ঈদের দিন

ঈদের দিন শহীদুল ইসলাম মামুন সবার মনে রঙ লেগেছে রোজা শেষে আজ ঈদ, ছোট বড় সবাই মিলে গাইছে আজ খুশির গীত। ধনী গরীব সবাই মিলে হয়ে গেছে আজ এক সবার হৃদে খুশির জোয়ার প্রান খুলে সবাই দেখ। দুঃখ কষ্ট ভুলে গিয়ে করছে মোলাকাত, চিরদিনই থাকুক এমন করি মোনাজাত।  3,381 total views,  3 views today

 3,381 total views,  3 views today

আমার গ্রাম

আমার গ্রাম শহীদুল ইসলাম মামুন সবুজ-শ্যামল আমার গ্রামটি চর চান্দিয়া নাম ছোট্ট গ্রামের মানুষগুলো খুবই ধর্মপ্রাণ। নানা রঙের গ্রামটি আমার দেখতে লাগে বেশ বাহারি তার রূপের কথা হবেনা তো শেষ। নির্জন এই পল্লীগাঁয়ে আছে ইলমি বাগান ছাত্ররা সব শিক্ষা নিয়ে জীবনটাকে সাজান। মাদ্রাসারই পুষ্পগুলো অমূল্য এক রতন ছেলে-বুড়ো গ্রামের সবাই করে তাদের যতন। দলে দলে মৌ পোকারা করে মধু আহরণ নামাজ পড়ে, রোজা রাখে করে রাত্রি জাগরণ। ছোট গ্রামে আছে আরোবিস্তারিত পড়ুন

 1,174 total views,  2 views today

সূর্যীমামার পিছু

সূর্যীমামার পিছু শহীদুল ইসলাম মামুন সন্ধ্যাবেলা নদীর পাড়ে হাঁটছি যখন একা এমন সময় পেলাম আমি সূর্যিমামার দেখা। সূর্যিমামা যাচ্ছে চলে বলছে না তো কিছু তাকে আমি ছুঁয়ে দিতে চললাম পিছু পিছু । অবশেষে দেখা পেলাম রক্তরাঙা আকাশে ফুলের বইছে তখন ভর করে সে বাতাসে। অবশেষে গেলো চলে পেলাম নাকো তাকে পখিগুলো উড়ছিলো সব এসে ঝাঁকে ঝাঁকে।  1,139 total views,  4 views today

 1,139 total views,  4 views today